1. mumin.2780@gmail.com : admin : Muminul Islam
  2. Amenulislam41@gmail.com : Amenul :
  3. smking63568@gmail.com : S.M Alamgir Hossain : S.M Alamgir Hossain
লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের গাড়ি চাপায়া সাপ ও বানরের মৃত্যু - আলোরদেশ২৪

লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের গাড়ি চাপায়া সাপ ও বানরের মৃত্যু

  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১০ মে, ২০২২
  • ৫৬৬ বার দেখা হয়েছে

লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান থেকে মানুষের কঙ্কাল উদ্ধার

কমলগঞ্জ মৌলভীবাজার প্রতিনিধি।।

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে গাড়ি চাপায় প্রাণ হারিয়েছে দু’টি বানর ও সাপ। সোমবার বেলা ৩টায় লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের ফুলবাড়ি চা বাগানের ৩নং প্লান্টেশন সংলগ্ন মুজিবের টিলা এলাকায় বানর ও মাগুরছড়া খাসিয়া পুঞ্জি এলাকায় সাপের মৃত্যু হয়।

পরিবেশকর্মী চঞ্চল গোয়ালা জানান যে, সোমবার বিকেল ৩ টার দিকে তিনি দেখতে পান প্রাণী দু’টি মরে পড়ে আছে। দ্রুতগতির গাড়ির চাকায় পিষ্ট হয়ে এ দুটি প্রাণীর মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে ফুলবাড়ি চা বাগানের ৩ নং প্লান্টেশন এলাকা সংলগ্ন মুজিবের টিলা এলাকায় কমলগঞ্জ-শ্রীমঙ্গল সড়ক পারাপারের সময় একটি উল্টোলেজি বানর এবং মাগুরছড়া গ্যাস ফিল্ড এলাকায় রাস্তা পারাপারের সময় একটি সাপ পিষ্ট হয়ে মারা যায়।

ঘটনার বেশ কিছু সময় পর এ দু’টি মৃত বন্যপ্রাণীর ছবি ধারণ করেন ও সামজিক যোগাযোগ মাধ্যম পোস্ট দেন দেন।

পরিবেশকর্মী আব্দুল আহাদ বলেন, দ্রুতগতির যানবাহনের কারণে প্রায়ই এ পথে কোন না কোন বন্য প্রাণী মারা যাচ্ছে। এমনিভাবে এ দু’টি বন্যপ্রাণীও মারা গেছে। গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করে প্রশাসনের মাধ্যমে বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ লাউয়াছড়া উদ্যান এলাকায় ধীরগতিতে যানবাহান চলাচলের ব্যবস্থা গ্রহণেরও দাবি জানান তিনি।

বন্যপ্রানী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের লাউয়াছড়া রেঞ্জ বন কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম প্রথমে ঘটনাটি তিনি জানেন না বললেও পরে খোঁজ নিয়ে তিনি দু’টি বন্যপ্রাণীর মৃত্যুর বিষয়টি শ্যামল সিলেটকে নিশ্চিত করেন।

বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, বিষয়টি তার জানা ছিল না, তবে এখন বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন।

শেয়ার..

আরো সংবাদ পড়ুন...
© ২০২৩ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | আলোর দেশ ২৪ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Developed By Radwan Ahmed