1. mumin.2780@gmail.com : admin : Muminul Islam
  2. Amenulislam41@gmail.com : Amenul :
  3. smking63568@gmail.com : S.M Alamgir Hossain : S.M Alamgir Hossain
গোলাপগঞ্জে নিখোঁজ মাদ্রাসার ছাত্র ! রহস্যজনক ভূমিকায় অধ্যক্ষ - আলোরদেশ২৪

গোলাপগঞ্জে নিখোঁজ মাদ্রাসার ছাত্র ! রহস্যজনক ভূমিকায় অধ্যক্ষ

  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ৩৪১ বার দেখা হয়েছে

মৌলভীবাজার জজকোর্টের নতুন পিপি রাধাপদ দেব সজল

সিলেট জেলা প্রতিনিধি।।

গোলাপগঞ্জ থেকে ৬দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছে এক মাদ্রাসা ছাত্র। উপজেলার জামেয়া ইসলামিয়া বহরগ্রাম মাদ্রাসা থেকে নিখোঁজ হয় সে। উপজেলার আমুড়া ইউনিয়নের কদমরসুল গ্রামের রাজন আহমদ রাজার পুত্র আব্দুর রহিম তানিম (১৪)। এ ঘটনায় তার বাবা ২২ ফেব্রুয়ারী গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন। ডায়েরী নং- ১১৩৮, তাং-২২.০২.২২। মাদ্রাসা থেকে ছাত্র নিখোঁজের ৪ দিন হলেও মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা এনামুল হকের ভ‚মিকা এখনো রহস্যজনক। তিনি কোন ধরনের সহযোগীতা না করে উল্টো তানিমের পিতা ও আত্মীয়-স্বজনদের সাথে খারাপ ব্যবহার করেছেন বলে জানান পরিবারবর্গ।
পরিবার সূত্রে জানাযায়, গত রমজানের পর থেকে আব্দুর রহিম তানিম জামেয়া ইসলামিয়া বহরগ্রাম মাদ্রাসার ৫ম শ্রেণীতে ভর্তি হন। তানিম মাদ্রাসার বর্ডিংয়ে থেকেই পড়াশোনা করত। মাস-দেড়েক অন্তর অন্তর বাড়ীতে আসত। গত ২০শে ফেব্রুয়ারী (রোববার) দেড়টার পর থেকে তাকে আর পাওয়া যায়নি। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক তানিম বাবা ও পরিবারের লোকজন তার সন্ধানে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করেও তার কোন খবর পাওয়া যায়নি। পরিবারের মধ্যে আব্দুর রহিম তানিম এক বোন ও দু’ভাইয়ের মধ্যে ২য়।

এদিকে মাদ্রাসা ছাত্র আব্দুর রহিম তানিম নিখোঁজের ঘটনায় মাদ্রাসা প্রিন্সিপাল মাওলানা এনামুল হকের সাথে যোগাযোগ করলেও কোন ধরনের সহযোগীতা না করে উল্টো দায়িত্বহীন এবং খারাপ ব্যবহার করে তানিমের পরিবারের সাথে। একদিকে সন্তান নিখোঁজ অন্যদিনে প্রিন্সিপালের এমন ব্যবহারে উৎকণ্ঠায় পরিবারবর্গ। তানিমের পিতা প্রতিবেদককে জানান, নিখোঁজের খবর পাওয়ার পর প্রিন্সিপালের সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করলে বিষয়টি তিনি আমলে না নিয়ে ছাত্রকে দূষারূপ করেন। তিনি আরো জানান, মাদ্রাসায় শত শত শিক্ষার্থী, তাদের দায়িত্ব আমাদের না। সে কোথায় পালিয়ে গেছে, আপনারা খোঁজ করেন। পরদিন তারা মাদ্রাসায় গিয়েও কোন ধরনের সহযোগীতা পাননি। সেখানে দূর্ব্যবহারের করেন প্রিন্সিপাল। বিষয়টি গোলাপগঞ্জ মডেল থানাকেও অবহিত করা হয়েছে।

এব্যাপারে জামেয়া ইসলামিয়া বহরগ্রাম মাদ্রাসার পিন্সিপাল মাওলানা এনামুল হকের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ঘটনার দিন আমাদের মাদ্রাসায় একটি অনুষ্ঠান ছিল। রাতে আব্দুর রহিম তানিমকে রুমে না পাওয়া তার খোঁজ করলে জানতে পারি সে যোহরের পর থেকে মাদ্রাসায় নেই। পরদিন তার পরিচিত শিক্ষার্থী বদরুল আমিনকে দিয়ে বাড়ীতে খোঁজ করলে তাকে সেখানেও পাওয়া যায়নি। তানিমের পরিবার আত্মীয়-স্বজনদের সাথে খারাপ ব্যবহার ও কোন ধরনের সহযোগীতা না করার বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন। তিনি আরো জানান, সে আগেও একাধিকবার মাদ্রাসা না জানিয়ে বাড়ীতে গিয়েছে। এবারও আমরা এমনটি হতে পারে মনে করেছিলাম। তবে বদরুল আমিনের সাথে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করলে সে জানায়, মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল বা কারো কথায় নয়, আমার ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে আব্দুর রহিম তামিমের খোঁজ নিয়ে তার বাড়ীতে ফোন দিয়েছিলাম।

গোলাপগঞ্জ মডেল থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই এখলাছুর রহমান জানান, জিডি এন্ট্রির পরপরই তার সন্ধানে বিভিন্ন স্থানে যোগাযোগ করেছি। মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্য ও দায়িত্বরত গ্রাম পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করেছি। বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারী) তদন্তের জন্য ঘটনাস্থল জামেয়া ইসলামিয়া মাদ্রাসায় যাব। এছাড়া বিষয়টি গুরুত্বের সাথে তদন্ত করবেন বলে জানান তিনি।

তানিমের বাবা রাজন আহমদ রাজা সমাজের সকলের কাছে পুত্রের সন্ধানে সহযোগীতা কামনা করেন। কোন হৃদয়বান ব্যক্তি তার সন্ধান পেলে ০১৭১৯-৯৪৯৮৯৯ এই নাম্বারে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করেছেন।

শেয়ার..

আরো সংবাদ পড়ুন...
© ২০২৩ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | আলোর দেশ ২৪ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Developed By Radwan Ahmed