1. mumin.2780@gmail.com : admin : Muminul Islam
  2. Amenulislam41@gmail.com : Amenul :
  3. smking63568@gmail.com : S.M Alamgir Hossain : S.M Alamgir Hossain
হাইকোর্টের আদেশ অমান্য করে কৃষি জমিতে আবাসন প্রকল্পের বালি ভরাট - আলোরদেশ২৪
সংবাদ শিরোনাম :
কমলগঞ্জে মণিপুরী সমাজ কল্যাণ সমিতির নির্বাচন ১৪ই জুন কুয়েতে ভবনে আগুন মালিকদের লোভকে দুষলেন উপ-প্রধানমন্ত্রী কমলগঞ্জে আব্দুল গফুর চৌধুরী মহিলা কলেজে বার্ষিক মিলাদ মাহফিল কমলগঞ্জে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান কমলগঞ্জের ভানুবিলে কৃষক প্রজা আন্দোলন কমলগঞ্জে স্মার্ট ভূমিসেবা সপ্তাহের শুভ উদ্বোধন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড কমলগঞ্জ উপজেলা ইউনিট এর অভিষেক কুমিল্লায় কোরবানি পশুর হাটের ইজারা নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ কমলগঞ্জে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত-১ চা দিবসে চা’ শিল্প টিকিয়ে রাখতে হলে শ্রমিকদের জীবনমান উন্নয়ন করতে হবে

হাইকোর্টের আদেশ অমান্য করে কৃষি জমিতে আবাসন প্রকল্পের বালি ভরাট

  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ১৬ মার্চ, ২০২৩
  • ১৭১ বার দেখা হয়েছে



অনলাইন ডেস্ক নিউজ ::

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের নোয়াগাঁও, টেকদাসেরদিয়া, তিনওলোপ, কালনী, বড়আমদিয়া, বৈলদা, হিরনাল মৌজার প্রায় চার শতাধিক তিন ফসলি কৃষি জমিতে অবৈধভাবে বালি ভরাট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। হাইকোর্টের আদেশকে অমান্য করে মেরিন সিটি নামক আবাসন প্রকল্প কৃষকদের জমিতে জোড় পূর্বক বালি ভরাট করছে। কৃষি জমি, সরকারী খাল, অর্পিত ও খাস জমি এবং গ্রামীন রাস্তাঘাট আবাসন প্রকল্পটি বালি ফেলে ভরাট করে ফেলছে। আবাসন প্রকল্পের বালি ভরাটের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছেনা। প্রতিবাদ করলেই হামলা মামলাসহ নানা রকমভাবে কৃষকদের হয়রানী করা হচ্ছে। কৃষকরা স্থানীয় প্রশাসনের কাছে আবেদন নিবেদন করেও কোন সুফল পাচ্ছেনা।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, রূপগঞ্জের দাউদপুর ইউনিয়নের ওই এলাকার বেশিরভাগ তিন ফসলি কৃষি জমি। কোন জমিতে শাক সবজি চাষ করা হয়েছে কোন জমিতে ধান চাষ করা হয়েছে আাবার কোন জমিতে লাউও সিমের মাচা। ফলনও হয়েছে বেশ। এরই মধ্যে আবাসন প্রকল্পের বালু ভরাট কাজ চলছে। কৃষকরা জানিয়েছে, জমির নামমাত্র ওয়ারিশ ক্রয় করে কিংবা কিছু অংশ জমি ক্রয় করে আশপাশের জমি রাতের আধারে অবৈধভাবে দিনে রাতে বালি ভরাট কাজ চলছে। প্রতিবাদ করার কারো সাহস নেই নিরবে নির্বৃত্তে কৃষকরা কাঁদছে।

এ ব্যাপারে কৃষকরা উপায়ন্ত না পেয়ে ২০২২ সালে ১২ জন কৃষক হাইকোর্টে রিট পিটিশন মাললা দায়ের করে। মাসমলা নং ৯৫৭৯/২০২২ইং। হাইকোর্ট ২০২৩ সালের ১২ই মার্চ মেরিন সিটির সকল কার্যক্রম স্থিতি অবস্থায় রাখার নির্দেশ দিয়েছে। কিন্তু মেরিন সিটি হাইকোর্টের দেয়া এই আদেশকে অমান্য করে কৃষকদের তিন ফসলি জমি জোড়পূর্বক ভরাট করছে। এছাড়া মেরিন সিটি কৃষকের জমি দখলে নিয়ে স্থাপনা নির্মান কাজ অব্যাহত রেখেছে। শীতলক্ষ্যা নদীর তীর থেকে মেরিন সিটির প্রায় তিন কিলোমিটার জুড়ে বালি ভরাটের পাইপ বসানো হয়েছে। এক দিকে কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে অন্যদিকে পাইপ থেকে লিকেজ হয়ে ফসলি জমিতে বালি পড়ে স্তুপে পরিণত হচ্ছে। তাতে কৃষকরা মারাত্বকভাবে আর্থিক ক্ষতির সম্মূক্ষিন হচ্ছে।

দাউদপুর ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক তমিজউদ্দিন রাজ বলেন, জমি না কিনেই কৃষকদের জমি ভরাট করা হচ্ছে। মেরিন সিটি স্থানীয় প্রশাসনের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করছে। এখানে কৃষকরা দিনদিন অসহায় হয়ে পড়ছে।

কালনী এলাকার কৃষক সামসুদ্দিন ওরফে সূরুজ মিয়া বলেন, হিরনাল মৌজার তার ২৮ শতাংশ কৃষি জমি মেরিন সিটি অবৈধভাবে দখলে নিয়ে বালি ভরাট করছে। বালির সঙ্গে আসা পানিতে ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে।
টেকদাসেরদিয়া গ্রামের কৃষক ইদ্রিস আলী ও লোকমান হোসেন বলেন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, প্রভাবশালী ও মেরিন সিটির নিয়োজিত সন্ত্রাসীরা আবাসন প্রকল্পের পক্ষ নিয়ে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

মেরিন সিটির প্রকল্প পরিচালক জহিরুল ইসলাম বলেন, আমাদের কেনা জমিতেই বালি ভরাট করছি। হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা আদেশের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেনা বলে ফোন কেটে দেন।

রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফয়সাল হক বলেন, মহামান্য হাইকোর্টের নির্দেশনা না পাওয়া পর্যন্ত আমাদের কিছু করার নেই। নির্দেশনা পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার..

আরো সংবাদ পড়ুন...
© ২০২৩ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | আলোর দেশ ২৪ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Developed By Radwan Ahmed