1. mumin.2780@gmail.com : admin : Muminul Islam
  2. Amenulislam41@gmail.com : Amenul :
  3. smking63568@gmail.com : S.M Alamgir Hossain : S.M Alamgir Hossain
কমলগঞ্জে ক্রয়কৃত জমিতে ঘর নির্মাণে প্রতিপক্ষের বাঁধা - আলোরদেশ২৪

কমলগঞ্জে ক্রয়কৃত জমিতে ঘর নির্মাণে প্রতিপক্ষের বাঁধা

  • প্রকাশিত : সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ১০১ বার দেখা হয়েছে


কমলগঞ্জ( মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি:

কমলগঞ্জে রেলওয়ে এলাকায় বৈধ দোকানদারদের উচ্ছেদের পায়তারার অভিযোগ

ক্রয়কৃত জমিতে ঘর নির্মাণে প্রতিপক্ষের বাঁধার মুখে পড়েছেন মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার পৌর এলাকার নছরতপুর (কাজিরগাঁও) গ্রামের মো. রশিদ মিয়া। নিজের নামে ক্রয়কৃত জায়গা নামজারি করে ভোগ দখল থেকে পাকা দালানকোটা নির্মানে করতে গিয়ে হয়রানিমুলক আজ মামলায় হেনস্তা হচ্ছে।

এ নিয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি এবং এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদ্বয়ের কাছে বিচার চেয়ে সমাধান পাননি তিনি। উল্টো প্রতিপক্ষ মো.কদ্দুছ মিয়া ও তার ছেলে পারভেজ মিয়া এবং কদ্দুসের ভাই রহমত মিয়া গং জমির মালিক রশিদ মিয়াকে নিয়ে নানান অপপ্রচার ও তার বিরোদ্ধে মামলা দিয়ে হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

জানা যায় যে, গত ২০২৩ সালের শেষের দিকে প্রতিবেশি সুনীল চন্দ্র মালাকার, নিখিল চন্দ্র মালাকার, দিলিপ চন্দ্র মালাকার এই ৩ ব্যক্তির কাছ থেকে ২৫ শতক জায়গা ক্রয় করেন নছরতপুর (কাজিরগাঁও) গ্রামের মো. মরতুজ মিয়ার ছেলে মো. রশিদ মিয়া। জমি ক্রয় করার পরে অনলাইন রেকর্ড সহ জমির খাজনা পাতি পরিশোদ করে পাকা বসতবিটা নির্মাণ শুরু করেন। বতঘর নির্মান কাজ শুরু করলে খরিদকৃত জমিটি পৈতিক সম্পত্তির মালিকানা দাবী করে একই এলাকার মৃত ময়না মিয়ার ছেলে মো.কদ্দুছ মিয়া, রহমত মিয়া নির্মান কাজে বাধাঁ দেন। এ নিয়ে স্থানীয় পৌর মেয়র, কাউন্সিলর নিকট বিচার প্রার্থী হলে শালিসের ডাকে সারা দেননি কথিত পৈতিক জমির মালিক দাবিদাররা।

অভিযোগ রয়েছে স্থানীয় মৃত খালিক মিয়ার ছেলে সামছুল মিয়া, রকিব মিয়ার পরোচনায় শালিস অমান্য করে রশিদের বিরোদ্ধে তারা আদালতে সত্ত্ব মামলা করে। মামলার পাশাপাশি নানান ভাবে হুমকি ও ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে।

আলাপকালে জমির মালিক রশিদ মিয়া বলেন, টাকা দিয়ে বৈধভাবে জমি কিনে দালালকোটা করতে গিয়ে হয়রানির মুখে পড়তে হচ্ছে এখন আমায়। জমি কিনা কালীন সময়ে কেউ কোনো বাধাঁ প্রদান করেনি। কিন্তু সেই জায়গায় ঘর নির্মান করতে গেলে প্রতিবেশি মো.কদ্দুছ মিয়া ও রহমত মিয়া এসে পৈতিক জমি দাবী করে বাধাঁ দেওয়ায় নির্মান কাজ আটকে আছে।

পৈতিক জমির মালিক দাবিদার পারভেজ মিয়া বলেন, ‘আমাদের পৌতৃক সম্পত্বি এখানে। রশিদ মিয়া কিভাবে জায়গা ক্রয় করলেন আমাদের জানা নেই। হঠাৎ দেখি তিনি ঘর নির্মান করছেন শুনে আমরা কাজে বাধা দেই। পরে এখানে কোনো ধরনের ঘর নির্মান যাতে না হয় সেজন্য মৌলভীবাজার কোর্টে মামলা করেছি। সনাতনি সম্প্রদায়ের ভু-সম্পত্তি কিভাবে পৈতিক সম্পত্তি হয় এমন প্রশ্নের কোনো জবাব মিলেনি পারভেজ মিয়ার কাছে।’

স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর আনসার শোকরানা মান্না বলেন, ‘জায়গাটা হল হিন্দু সম্প্রাদয়ের লোকের। জমির প্রকৃত মালিকের কাছ থেকে ২০২৩ সালে রশিদ মিয়ার কিনেন। পরে কিনা জমিতে রশিদ মিয়া ঘর নির্মান করতে গেলে কদ্দুছ গংরা বাধা প্রদান করেন। তাছাড়া রশিদ মিয়ার উপড় মামলা দিয়েও তারা হয়রানি করছেন।
এটা কোনোভাবেই ঠিক নয়।


শেয়ার..

আরো সংবাদ পড়ুন...
© ২০২৩ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | আলোর দেশ ২৪ | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Developed By Radwan Ahmed